Home / প্রবাসী গল্প / এখনি জেনে নিন কিভাবে ব্রাজিলের ভিসা পাবেন সহজেই ?
photo-119

এখনি জেনে নিন কিভাবে ব্রাজিলের ভিসা পাবেন সহজেই ?

এখনি জেনে নিন কিভাবে ব্রাজিলের ভিসা পাবেন সহজেই ?

গত বিশ্বকাপ আয়োজনে ব্রাজিলের খরচ কত জানেন? বার্তা সংস্থা এএফপির এক প্রতিবেদন অনুযায়ী এই খরচটা মার্কিন ডলারে ছাড়িয়ে গেছে ১১ বিলিয়ন। বাংলাদেশি টাকায় যা ৮৫ হাজার কোটি টাকারও বেশি। বাংলাদেশের জাতীয় বাজেট যেখানে দুই লাখ কোটি টাকার আশপাশে ঘোরাফেরা করে !
অন্যদিকে অলিম্পিকের মতো বড় আসর মানে বিশাল কর্মযজ্ঞ। এলাহী কাণ্ড বললেও এ আসরের বিশালত্বকে খাট করা হবে। এ বিশাল কর্মযজ্ঞের সমাপনী টানতে প্রয়োজন হয় বিপুল পরিমাণ অর্থের। আর অল্প সময়ের মধ্যে বিশাল অংকের অর্থের আদান-প্রদানে আয়োজক দেশের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে গতির সঞ্চার হয়। আয়ের পথ প্রশস্ত হয় লাখ লাখ মানুষের। স্থানীয় করপোরেটদের আয় বাড়াতেও সহায়ক ভূমিকা পালন করে অলিম্পিক আসর। এতে দেশের শেয়ারবাজারও চাঙ্গা হয় বলে গবেষণায় তথ্য মিলেছে।
রাশিয়ার মস্কোতে ১৯৮০ সালের অলিম্পিকে মোট বাজেট ছিল ২৩ কোটি ডলার, যুক্তরাষ্ট্রের লস এঞ্জেলসে অনুষ্ঠিত ১৯৮৪ সালের অলিম্পিকে মোট বাজেট ছিল ৩২ কোটি ডলার, কোরিয়ার সিউলে অনুষ্ঠিত ১৯৮৮ সালের অলিম্পিকের মোট বাজেট ছিল ৪০০ কোটি ডলার, স্পেনের বার্সেলোনায় অনুষ্ঠিত ১৯৯২ সালের অলিম্পিকের মোট বাজেট ছিল ৮৫ কোটি ডলার। এছাড়া যুক্তরাষ্ট্রের আটলান্টায় অনুষ্ঠিত ১৯৯৬ সালের অলিম্পিকের মোট বাজেট ছিল ১৮০ কোটি ডলার, অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে ২০০০ সালের অলিম্পিকের মোট বাজেট ছিল ৬৬০ কোটি ডলার। আর ২০০৪ সালে গ্রিসের এথেন্সে অনুষ্ঠিত অলিম্পিকের মোট বাজেট ছিল দেড় হাজার কোটি ডলার, চীনের বেইজিংয়ে অনুষ্ঠিত ২০০৮ সালের অলিম্পিকের বাজেট ছিল চার হাজার ৪০০ কোটি ডলার এবং যুক্তরাজ্যের লন্ডনে অনুষ্ঠিত ২০১২ সালের অলিম্পিকের বাজেট ছিল এক হাজার ৪০ কোটি ডলার।
ব্রাজিল রিও অলিম্পিকে বাজেট  এক হাজার ১৬০ কোটি ডলার।
২০০৯ সালে ব্রাজিল যখন অলিম্পিক আয়োজনের দায়িত্ব পায়, তখন তাদের অর্থনীতি দারুণভাবে এগিয়ে যাচ্ছিল। কিন্তু পরবর্তীকালে তা আর সেখানে স্থির থাকেনি। বিশ্ব অর্থনীতি, রাজনৈতিক অস্থিরতাসহ নানা কারণে তাদের অর্থনৈতিক সূচকগুলো ধীরে-ধীরে  নিচের দিকে নেমেছে। গত কয়েক বছর ধরে ব্রাজিলের অর্থনীতিতে যে মন্দা চলছে এ বড় উত্সবের মাধ্যমে তা কাটাতে চাচ্ছে সে দেশের সরকার।
ব্রাজিলের কার্নিভাল  হচ্ছে ব্রাজিলের একটি বাৎসরিক উৎসব, যা ইস্টারের চল্লিশ দিন আগে অনুষ্ঠিত হয়। লেন্টের কিছু নির্দিষ্ট দিনে রোমান ক্যাথলিক ও অন্যান্য কিছু খ্রিস্টধর্মাবলম্বী ঐতিহ্যগতভাবে মাংস ও ডিমজাত খাবার গ্রহণ করা ত্যাগ করে। ‘কার্নিভাল’ শব্দটি এসেছে ‘carnelevare’ থেকে, যার অর্থ ‘মাংস ত্যাগ করা’। বিশ্বাস করা হয় যে, কার্নিভাল উদ্‌যাপনের বিষয়টি এসেছে সাতুরলানিয়ার পেগান উৎসব থেকে, যা মূলত খ্রিস্টীয় ভাবাধারা থেকে উৎপত্তি।
১৭২৩ সালে প্রথমবারের মত অনুষ্ঠিত হয় এই উৎসব। তার পর থেকেই ধীরে ধীরে এটি ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায়। একসময় আন্তর্জাতিক পরিচিতির মাধ্যমে এখন ব্রাজিলের সবচেয়ে বড় আয়ের উৎস এটি।
প্রতি বছর কার্নিভালে বিদেশী পর্যটকদের উপস্থিতি বাড়াতে ব্রাজিল সরকার তাদের দেশে আসতে উৎসক পর্যটকদের ভিসা নীতি সহজ করে থাকে।
আর গত বিশ্ব কাপ ও রিও অলিম্পিকের বাজেট বিপর্যয় কাটিয়ে ওঠতে এবার ব্রাজিল কার্নিবালকে কাজে লাগাতে চায় ব্রাজিল সরকার।  তাই এই কার্নিবালে আপনিও পেতে পারেন সহজে ব্রাজিলের ভিসা।
যদি আপনি বেড়াতে যেতে চান আপনার বন্ধু বান্ধব, আত্মীয় স্বজনের কাছে বা  ঘুরতে চান দেখতে চান ব্রাজিল, কিংবা কোন বিজনেস মিটিং আছে সেখানে যেতে চান – তাহলে আপনাকে ৯০ দিনের মাল্টিপল ভিজিট ভিসা দেবে ব্রাজিল। এই ভিসাতে আপনি যেকোন সময় ব্রাজিল যেতে পারবেন বা আসতে পারবেন । আর এই ৯০ দিনের ভিসা নিয়ে এক সাথে ৯০ দিন  বা কাজ শেষে দেশে ফিরে আবার  ৯০ দিনের মধ্যে ব্রাজিল জাওয়ার বা  থাকার অনুমতি দেবে আপনাকে ইমিগ্রেশন ডিপামেন্ট ।
এই ভিসা পাবার যোগ্যতা হল আপনি আবার নিজের দেশে ফেরত আসবেন সেই নিশ্চয়তা যেন কনসুলার অফিসার পান । এই ভিসার খেত্রে আপনার পুর্বের ট্রাভেল হিষ্ট্রি দেখা হয় অর্থাত কোন দেশে আগে গিয়েছেন, দেশে কি চাকুরী বা ব্যবসাতে আছেন, কোথায় পড়াশুনা করেছেন, আপনার মানথলি ইনকাম কত । আনুসাংগিক ডকুমেন্টস দেখতে চাইবে ব্রাজিল হাই কমিশন ।
ভিজিট ভিসা ফর মিটিং এন্ড সাইট সিং 

৬ মাসের ব্যাংক স্টেটম্যান্ট, ব্যাংক সলভেন্সি লেটার, অফিস লেটার আপনার পদবী বেতন, কতদিন হল জবে আছেন বা ব্যবসাতে আছেন উল্লেখ করে । ব্যবসা করলে ট্রেডলা্ইসেন্স লাগবে এবং সেটা নোটারী করে দিতে হবে । ব্যাংকষ্টেটম্যান্টের শেষ ব্যালান্স অন্তত একলাখ টাকার উর্দ্ধে থাকতে হবে । ব্রাজিলের ক্ষেত্রে ব্যাংকে অবশ্যই আরও বেশি  ৬ থেকে ৭ লক্ষ টাকা দেখাতে হবে । সাথে কনফার্ম হোটেল বুকিং বা এক জন ব্রাজিলিয়ান নাগরিক এর  ইনভাইটেশন লাগবে ।

বিজনেস হলেও  অবশ্যই ইনভাইটেশন লাগবে ।

Check Also

soudi

যে কারনে বিয়ে করতে ভয় পান সৌদি আরবের নারী ও পুরুষেরা – জানলে অভাক হবেন!!

যে কারনে বিয়ে করতে ভয় পান সৌদি আরবের নারী ও পুরুষেরা – জানলে অভাক হবেন!! …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *